Imran Khan: পাকিস্তানের মসনদে কি ফিরছেন ইমরান? ফল ঘোষণার আগেই জামিন পেলেন ১২টি মামলায় – Bengali News | Ahead of Pakistan Election Result, Former Pakistan PM Imran Khan gets Bail in 12 Cases relating to Attack on Army

0

জামিন পেলেন ইমরান খান। ফাইল ছবি।Image Credit source: AFP

ইসলামাবাদ: নির্বাচনে লড়েননি, তাও এগিয়ে ইমরান খানই (Imran Khan)। পিটিআই সমর্থিত প্রার্থীরাই এগিয়ে রয়েছেন পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে। ফল প্রকাশের আগেই বড় খবর। ১২টি মামলায় জামিন (Bail) পেলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের অ্যান্টি-টেররিজম কোর্টের তরফে ইমরান খান ও প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিকে ১২টি মামলায় জামিন দেওয়া হয়। গত বছরের মে মাসে পাকিস্তানের সামরিক ঘাঁটিতে হামলা সংক্রান্ত মামলাতেই জামিন পেয়েছেন ইমরান।

চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার ছিল পাকিস্তানের নির্বাচন। জেলবন্দি থাকায় এবারের নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের তরফেও ইমরানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের বৈধতা বাতিল করে দেওয়া হয়। ইমরানের দলের কর্মী-সমর্থকরা বেগুন প্রতীকে নির্দল প্রার্থী হিসাবেই লড়েছেন। শনিবার থেকে শুরু হয়েছে ভোট গণনা। এখনও অবধি চূড়ান্ত ফল প্রকাশ হয়নি। তবে প্রাথমিক গণনায় এগিয়ে রয়েছেন পিটিআই সমর্থিত প্রার্থীরাই। তবে একক সংখ্য়াগরিষ্ঠ দল হিসাবে এগিয়ে রয়েছে নওয়াজ শরিফের দলই।

নির্বাচনের ফল ঘোষণার আগেই বড় স্বস্তি পেলেন জেলবন্দি প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেনাঘাঁটিতে হামলা চালানো সংক্রান্ত ১২টি মামলায় জামিন পেলেন তিনি। একই মামলায় জামিন পেয়েছেন প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশিও।

কী ঘটেছিল সেইদিন? 

গত বছরের ৯ মে পাকিস্তানের একাধিক সেনাঘাঁটিতে হামলা চালানোর অভিযোগে ইমরান খান ও পিটিআইয়ের নেতাদের বিরুদ্ধে। ইসলামাবাদ থেকে ইমরান খানকে গ্রেফতার করে প্যারামিলিটারি রেঞ্জার্স। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই রাওয়ালপিন্ডিতে সেনার সদর দফতর সহ প্রায় ২০টি সামরিক ঘাঁটিতে হামলা ও ভাঙচুর চালানো হয়েছিল। লাহোরের কর্পস কম্যান্ডারের বাড়ি, শাদমান পুলিশ স্টেশনেও হামলা হয়। শতাধিক পিটিআই কর্মী-সমর্থককে গ্রেফতার করা হয়। ওই মামলাতেই অভিযুক্ত ছিলেন ইমরান।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed