CAR-T সেল থেরাপিতে দেশে প্রথম ক্যান্সার-মুক্ত রোগী দিল্লির চিকিৎসক, কী এই থেরাপি জানুন – Bengali News | Delhi doctor declared as first cancer free patient by Indias CAR T cell therapy

0

নয়া দিল্লি: ক্যান্সার নিরাময় সম্ভব। রেডিয়েশন দিয়ে কেমোথেরাপির মাধ্যমে নয়, এবার তুলনামূলক কম খরচে, একেবারে দেশীয় চিকিৎসা পদ্ধতি, CAR-T সেল থেরাপির মাধ্যমে ক্যান্সার-মুক্ত হলেন ডা. (কর্নেল) ভিকে গুপ্তা। দিল্লির বাসিন্দা এই ব্যক্তি নিজে গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজিস্ট। তিনিই প্রথম CAR-T সেল থেরাপি গ্রহণ করেন। আর এই থেরাপির মাধ্যমেই ক্যান্সার-মুক্ত হলেন ডা. ভিকে গুপ্তা।

গত বছরের অক্টোবরেই সেন্ট্রাল ড্রাগস স্ট্যান্ডার্ড কন্ট্রোল অর্গানাইজেশন (CDSCO) ক্যান্সারের চিকিৎসায় CAR-T সেল থেরাপি ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। এই থেরাপি মূলত, ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রথমে রোগীর দেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে বাড়িয়ে তোলে। আরও ভালভাবে বলতে গেলে, T কোষ হল এক ধরনের শ্বেত রক্তকণিকা, যা শরীরকে সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করতে সাহায্য করে। ক্যান্সার নিরাময়ে এই থেরাপি বিদেশেও ব্যবহৃত হয়। যার খরচ পড়ে ৪ কোটি টাকা। কিন্তু, ডা. ভিকে গুপ্তা মুম্বইয়ে টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালেই এই থেরাপি নিয়ে ক্যান্সার-মুক্ত হয়ে উঠেছেন। বর্তমানে CAR-T সেল থেরাপির মাধ্যমে ক্যান্সার-মুক্ত রোগী হলেন দিল্লির এই গ্যাস্ট্রোএন্ট্রোলজিস্ট। আর টাটা মেমোরিয়াল হাসপাতালে তাঁর এই থেরাপি নিতে খরচ পড়েছে মাত্র ৪২ লক্ষ টাকা।

এই খবরটিও পড়ুন

ক্যান্সার নিরাময়ে বর্তমানে সবচেয়ে প্রচলিত চিকিৎসা পদ্ধতি হল, কেমোথেরাপি। তবে এই থেরাপি সকলের নেওয়ার ক্ষমতা থাকে না। কেমোথেরাপি নেওয়ার ফলে চুল উঠে যাওয়া, ত্বক রুক্ষ হয়ে যাওয়া-সহ নানারকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। সেক্ষেত্রে CAR-T সেল থেরাপি ক্যান্সার নিরাময়ে বিপ্লব আনতে পারে। এই থেরাপি মূলত, T কোষকে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইকারী শক্তিশালী CAR-T কোষে পরিণত করে। মূলত, ব্লাড ক্যান্সার নিরাময়ে বিশেষ সাহায্য করে এই থেরাপি।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed