নিজের ‘প্রাক্তন’ প্রেমিকাকে বিয়ের প্রথম কার্ড দিয়েছিলেন রাজ, সেই নারী এখন কোথায়? – Bengali News | To whom did mla director raj chakraborty send his marriage invitation first

0

অভিনেত্রী শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়ের সঙ্গে সুখে সংসার করছেন বিধায়ক-পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। এক পুত্রের পর সম্প্রতি এক কন্য়া সন্তানের পিতা-মাতা হয়েছেন তাঁরা। ইউভান-ইয়ালিনিকে (পুত্র এবং কন্যার নাম) নিয়ে দারুণ জীবন তাঁদের। ২০১৮ সালে সমস্ত প্রথা মেনে শুভশ্রীকে বিয়ে করেছিলেন রাজ। কিন্তু এই রাজের আগেও বিয়ে হয়েছিল। ২০০৬ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শতাব্দী মিত্রর সঙ্গে সংসার করেছিলেন রাজ। সেই সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার পর একাধিক নায়িকার সঙ্গে নামও জড়ায় তাঁর।

সেই অভিনেত্রীদের অন্যতম পায়েল সরকার এবং মিমি চক্রবর্তী। পায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ হওয়ার পর মিমিকে প্রেমিকা হিসেবে পেয়েছিলেন রাজ। শোনা যায়, তাঁরা নাকি পুরীর জগন্নাথের মন্দিরে গিয়ে বিয়েটাও সেরে ফেলেছিলেন। তারপর মিমি একটি শুটিং করতে তুরস্কে যান। সেখানে এক লাইন প্রোডিউসারের ছেলের সঙ্গে মেলামেশা করার পরই নাকি মিমির সঙ্গে রাজের সম্পর্কে ভাঙন ধরে। পথ আলাদা হয়ে যায় তাঁদের। তারপরই শুভশ্রীর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি হয় রাজের এবং তাঁদের বিয়েটাও হয়ে যায়।

এক টকশোতে অভিনেতা শাশ্বত চট্টোপাধ্য়ায়কে রাজ জানিয়েছিলেন, মিমিকেই তিনি তাঁর এবং শুভশ্রীর বিয়ের প্রথম কার্ডটি দিতে চান। তার আগে অন্য এক এপিসোডে মিমিকে শাশ্বত জিজ্ঞেস করেছিলেন, রাজ কবে বিয়ে করছেন শুভশ্রীকে? সেই প্রশ্নের উত্তরে রাজ এমন কথা বলেছিলেন মিমিকে।

দুই ‘প্রাক্তন’ এখন অনেক দূরে এগিয়ে গিয়েছেন কেরিয়ারে। মিমি বর্তমানে দক্ষিণ কলকাতা যাদবপুর কেন্দ্রের সাংসদ। রাজ এখন উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর কেন্দ্রের তৃণমূল বিধায়ক। সিনেমা নির্মাণের পাশাপাশি রাজনৈতিক কর্তব্য পালন করছেন রাজ। কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের চেয়ারম্যান তিনি। জমিয়ে সংসার করছেন। অন্যদিকে মিমির জীবনে কেবলই সিনেমা-সিরিজ়-রাজনৈতিক কাজ। বিয়ে থা নিয়ে খুব একটা মাথা ঘামাচ্ছেন না তারকা।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed