India vs South Africa: ব্রিসবেন না কেপটাউন? কোন দুর্গ জয়ে বেশি তৃপ্তি, জানালেন রোহিত শর্মা – Bengali News | Cape Town win ‘right up there’ with Gabba, Says India Captain Rohit Sharma

0

কলকাতা: গাব্বায় দেখে নেব। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ‘ঐতিহাসিক’ সেই উক্তি মনে পড়ে? আর তারপর ঋষভ পন্থের বাউন্ডারিতে ব্রিসবেনের গাব্বায় রুদ্ধশ্বাস সেই জয়! কেপটাউন টেস্টের আগে অবশ্য এমন কোনও হুঙ্কারের সামনে পড়তে হয়নি ভারতকে। তবে কৌতুহল জাগতেই পারে, কোন দুর্গ জয়ের তৃপ্তি বেশি! ব্রিসবেনে ভারতীয় দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন অজিঙ্ক রাহানে। কেপটাউনে নেতা রোহিত। দুই ভেনুতেই স্বাদ পেয়েছেন। কী বলছেন ভারত অধিনায়ক? বিস্তারিত জেনে নিন TV9 Bangla Sports-এর এই প্রতিবেদনে।

অস্ট্রেলিয়ায় পরপর দু-বার টেস্ট সিরিজ জিতেছে ভারত। গত সিরিজ অবশ্য নানা দিক থেকেই স্মরণীয়। অস্ট্রেলিয়ায় সিরিজের প্রথম টেস্ট ছিল গোলাপি বলে দিন-রাতের ম্যাচ। ৩৬ রান অলআউট হয়েছিল ভারত। শেষ অবধি লজ্জার হার। পিতৃত্বকালীন ছুটিতে দেশে ফেরেন বিরাট কোহলি। মেলবোর্নে অধিনায়ক রাহানের অনবদ্য সেঞ্চুরিতে জয়ে সমতা ফেরায় ভারত। সিডনিতে ড্র। ভাঙাচোরা দল নিয়েই ব্রিসবেনে জয়। অস্ট্রেলিয়া এই ভেনুতে অপ্রতিরোধ্য ছিল। সেখানে তাদের হারিয়ে ইতিহাস গড়েছিল ভারত। কেপটাউনে এশিয়ার কোনও দলই দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারাতে পারেনি। এখানেও দক্ষিণ আফ্রিকাকে হারিয়ে রেকর্ড।

কোন দুর্গ জয়ে বেশি তৃপ্তি প্রসঙ্গে ভারত অধিনায়ক বলছেন, ‘আমাদের অন্যতম সেরা জয় হয়ে থাকবে কেপটাউন টেস্ট। এর আগে কখনও কেপটাউনে টেস্ট জয়ের স্বাদ পাইনি। তবে টেস্ট জয়ের মধ্যে তুলনা করা খুবই কঠিন। প্রত্যেক ম্যাচের আলাদা প্রেক্ষাপট এবং গুরুত্ব থাকে। ব্রিসবেনের গাব্বায়ও আলাদা প্রেক্ষাপট ছিল। কারণ, ১৯৮৮-র পর সেই মাঠে হারেনি অস্ট্রেলিয়া। খুব ভুল না হলে ২৩, ২৪ বছর (৩২ বছর) পর আমরা সেখানে টেস্ট জিতেছিলাম। ওই মাঠ অস্ট্রেলিয়ার কাছে দুর্গ হয়ে উঠেছিল। আর পুরো সিরিজের প্রেক্ষাপটে ব্রিসবেনের জয়টা আলাদা মাত্রার ছিল।’

কেপটাউনে যেমন ইতিহাস গড়েছে ভারত, তেমনই লজ্জার রেকর্ডও। প্রথম ইনিংসে ভারতের ইনিংস শেষ হয় ১৫৩ রানে। একই স্কোরে শেষ ৬ উইকেট হারায় ভারত। টেস্টের ইতিহাসে ০ রানে শেষ ৫ উইকেট হারানোর রেকর্ড ছিল বাংলাদেশের দখলে। ভারত ৬ উইকেট হারানোয় সেই রেকর্ড ভেঙে যায়। তবে ম্যাচ জিতে কেপটাউনে নজির গড়েছে ভারতীয় দল।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed