‘ওটা কীসের দাগ’? শরীর নিয়ে তীব্র জেরা, বিধ্যায়ক-কন্যা বললেন… – Bengali News | Devlina kumar got trolled for wearing bikini at andaman, gives a befitting reply

0

অভিনেত্রী ও নৃত্যশিল্পী দেবলীনা কুমারকে নিয়ে সমালোচনার শেষ নেই। বিকিনি কেন পরেছেন, কেন মুখে দাগ হয়েছে, কেন স্বামীর সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়ে ছবি দিয়েছেন– নানা সময়ে বিভিন্ন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে দেখা যায় তাঁকে। দেবলীনার আরও এক পরিচয় রয়েছে। তিনি মেয়র পারিষদ-বিধায়ক দেবাশিস কুমারের একমাত্র মেয়ে। সম্প্রতি আন্দামান গিয়েছিলেন দেবলীনা। এই ট্রিপেও তাঁর সঙ্গী হয়েছে সেই ট্রোলিং। শরীর নিয়ে একের পর এক কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁকে। যদিও তিনি রেগে যাননি, করেননি দুর্ব্যবহার। বরং যার যা যা প্রশ্ন রয়েছে সেই সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন তিনি। সব কৌতূহলের অবসানও ঘটালেন। হট প্যান্ট পরে ছবি দিয়েছিলেন। পায়ে বালি লেগেছিল, নেটিজেন প্রশ্ন করলেন, “হাঁটুতে কী হয়েছে”? ‘বালির দাগ’– উত্তর দিলেন দেবলীনা। মুখে ব্রণের দাগ— তা নিয়েও নেটিজেনদের কৌতূহলের শেষ নেই। একজন লিখলেন, “গালে কী ওসব? উচ্ছে খাও, নিম পাতা ভাজা খাও”। সম্মতি জানালেন তিনি।

এখানেই কি শেষ নাকি? বিকিনি পরে উন্মুক্ত পিঠের ছবি দিতেই রে-রে করে উঠল একটা বড় অংশ। অনেকেই তাঁকে ‘নির্লজ্জ’ তকমা দিতেও পিছপা হলেন না। দেবলীনা শান্ত মাথায় লিখলেন, “সুবুদ্ধির কামনা করি সকলের জন্য। বাঙালির সংস্কৃতি এত ঠুনকো নয়, আমার মতো এগিয়ে থাকা জাতি খুব কম আছে। তাই কে কী পরল তা নিয়ে তাঁরা মাথা ঘামান না।” এত সমালোচনা সত্ত্বেও প্রতিটি প্রশ্নের এভাবে শান্ত ভাবে উত্তর দেওয়ার দেবলীনার প্রশংসায় ভেঙে পড়েছেন অনেকেই। অনেকেই করেছেন প্রশংসাও। যে ভাবে তিনি গোটা বিষয়টা সামলেছেন তা সত্যিই দৃষ্টান্তমূলক বলেই মনে করছেন তাঁরা।

সে যাই হোক, আন্দামানে কিন্তু একা যাননি দেবলীনা। সঙ্গে গিয়েছেন তাঁর স্বামী গৌরব চট্টোপাধ্যায়ও। জমিয়ে ছবি শেয়ার করছেন তিনিও। প্রসঙ্গত, এর আগে লাগাতার ট্রোলিং নিয়ে মুখ খুলেছিলেন দেবলীনা। তিনি বলেন, “সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেক ট্রোলিং হয় আমাকে নিয়ে। বলা হয় যে আমি বিধায়ক কন্যা এবং এই মুহূর্তে উত্তরকুমারের নাত বউ বলেই আমি প্রচণ্ড প্রিভিলেজড। কিন্তু বিশ্বাস করুন, এর অনেক নেগেটিভ পয়েন্টস আছে। আমাকে অনেক বেশি সচেতন থাকতে হয়। খালি মনে হয়, আমি যা-যা করছি, কিংবা যেভাবে নিজেকে মেলে ধরছি, সেটা হয়তো অনেকের পছন্দ নাও হতে পারে।” এই মুহূর্তে নিজের কাজ নিয়েও ব্যস্ত তিনি। ঘোরা তো রয়েছেই, এরই পাশাপাশি রয়েছে অধ্যাপনা, নাচের নানা অনুষ্ঠান।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed