ঐশ্বর্যের সঙ্গে বাড়ছে ঘনিষ্ঠতা, সত্যি লুকিয়ে আবারও চর্চায় বিবেক – Bengali News | Vivek oberoi did not disclosed his relation with aishwarya rai front of family also

0

সলমন খান ও বিবেক ওবেরয়, যাঁদের সম্পর্কের সমীকরণ নরমে গরমে বারবার খবরের শিরোনামে নাম লিখিয়েছে। কারণ একটাই ঐশ্বর্য রাই। বলিউডের তখন তিনি সুপারস্টার। একাধিক অভিনেতার মনে রাজত্ব করছেন দাপটের সঙ্গে। কখনও সলমন খান কখনও বিবেক কিংবা কখনও আবার অভিষেক বচ্চন। বারবার সুপারস্টারেরা তাঁর প্রেমে পড়েছেন। সলমন খানের সঙ্গে সমীকরণ মোটেও সুখকর ছিল না। ঐশ্বর্য রাই জানিয়েছিলেন তিনি সলমন খানের সঙ্গে থাকতে পারছেন না, তাঁর ব্যবহার অতিষ্ট করে তুলেছিল তাঁর জীবন, নষ্ট করছিল তাঁর কেরিয়ার।

এই বিবৃতি দেওয়ার কিছুদিন পরই জানা যায় তাঁর জীবনে এসেছেন নতুন প্রেম, নাম বিবেক ওবেরয়। তারপর থেকে সলমন খান ও বিবেক ওবেরয় মধ্যে বছর সকলের প্রকাশ্যে চলে আসে। বলিউডে কান পাতলে কখনও শোনা যেত রাত তিনটের সময় ফোন করে বিবেককে অকথ্য ভাষায় তিরস্কার করতেন সলমন কখনও আবার দিতেন মরে যাওয়ার হুমকি। এখানেই শেষ নয় বিভিন্ন সাংবাদিক বৈঠকে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিবেকের মুখোমুখি হলে তিনি যে আচরণ করতেন, তাঁর ভাষা বুঝতে ক্যামেরার খুব একটা সমস্যা হতো না। তবে জানেন কি, সবটাই যখন বলিউডের অন্দরমহলে চর্চার কেন্দের, ঠিক সেই সময় ঐশ্বর্যের সঙ্গে রোম্যান্সের কথা কাউকে জানতে দিতে চাননি বিবেক ওবেরয়। তিনি বাবার কাছ থেকেও সবটা লুকিয়ে রেখেছিলেন।

এই খবরটিও পড়ুন

একবার কফি উইথ করণ-এ এসে বিবেক ওবেরয় জানিয়েছিলেন তাঁর সলমন খানের প্রতি কোনও রাগ নেই। তিনি যখন সলমন খানেরকে প্রথম দেখেছিলেন, তাঁর মানুষ হিসেবে ভাইজানকে বেশ ভাল লেগেছিল। তবে বর্তমানে সলমন খান যে ব্যবহার করছেন তা কখনও কাম্য নয়। বিবেকের কথায় তিনি কেবল তাঁর জীবনের ভালবাসা অর্থাৎ ঐশ্বর্যকে আগলে রাখার চেষ্টা করছেন মাত্র। এতে কোথাও ভুল নেই বলেই মনে করতেন অভিনেতা। এই সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় ঐশ্বর্য ও বিবেক ওবেরয় সম্পর্কে ছিলেন। যদিও সে সম্পর্কের জল খুব বেশি দূর গড়ায়নি কিছুদিন পরই ঐশ্বর্য জীবনে আসেন অভিষেক বচ্চন। তারপরই পাল্টে যায় সকল সমীকরণ, তাঁর গলাতেই মালা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ঐশ্বর্য। বর্তমানে তাঁর সঙ্গেই চুটিয়ে সংসার করছেন বচ্চন বধু।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed