Indian origin family died: মার্কিন মুলুকে প্রাসাদোপম বাড়ি থেকে উদ্ধার ভারতীয় বংশোদ্ভূত দম্পতি ও কন্যার দেহ – Bengali News | Indian origin couple and their teenage daughter body found from a mansion in US

0

প্রাসাদপম বাড়ি থেকে উদ্ধার ভারতীয় বংশোদ্ভূত দম্পতি ও তাঁদের তরুণী মেয়ের দেহ উদ্ধার।Image Credit source: TV9 Bangla

ম্যাসাচুসেটস: মার্কিন মুলুকে কার্যত প্রাসাদ গড়ে তুলেছিলেন। সেই প্রাসাদোপম বাড়ি থেকে উদ্ধার হল ভারতীয় বংশোদ্ভূত দম্পতি ও তাঁদের কন্যাসন্তানের দেহ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটসে। পারিবারিক অশান্তির জেরেই এই ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান।

নরফক জেলা অ্যাটর্নি মাইকেল মোরিসে জানান, বোস্টনের কাছে ডোভার ম্যানসনে রাকেশ কমল (৫৭), তাঁর স্ত্রী টিনা (৫৪) এবং তাঁদের ১৮ বছরের মেয়ে আরিয়ানার দেহ উদ্ধার হয়েছে। তাঁদের দেহের পাশ থেকে একটি বন্দুক উদ্ধার হয়েছে। তবে তিনজনেরই গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে কি না তা স্পষ্ট করেননি মোরিসে। এটা আত্মহত্যা নাকি খুনের ঘটনা, তাও এখনও নিশ্চিত নয়। দেহগুলি ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে,রাকেশ কমল ও টিনা এডুনোভা নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চালাতেন। সম্প্রতি সেটি বন্ধ হয়ে গিয়েছে। ফলে এই পরিবার আর্থিক সমস্যায় ভুগছিলেন। পারিবারিক অশান্তিও চলছিল। এমনকি ১১টি বেডরুম, ১৩টি বাথরুম বিশিষ্ট প্রাসাদপোম যে বাড়ি থেকে তাঁদের দেহ উদ্ধার হয়েছে সেটিও সম্প্রতি বন্ধক দেওয়া হয়েছিল বলে জানতে পেরেছে প্রশাসন। অন্তত ১০ মিলিয়ন ডলার পর্যন্ত দেনায় ডুবে রয়েছে এই পরিবার। তাঁদের দেউলিয়া ঘোষণা করার জন্য গত বছর আবেদনও জানিয়েছিলেন টিনা। যদিও যথোপযুক্ত প্রমাণের অভাবে সেটা মঞ্জুর হয়নি। এর মধ্যে তাঁদের মেয়ে আরিয়ানা মিডলবারি কলেজে নিউরো সায়েন্স কোর্সে ভর্তি হয়েছিলেন। যার বার্ষিক খরচ ছিল ৬৪,৮০০ মার্কিন ডলার। এই চরম আর্থিক সংকটের জেরেই পরিবারের তিনজনই আত্মহত্যা করেন বলে পুলিশের প্রাথমিক অনুমান।

এই খবরটিও পড়ুন

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কমলের পরিবারের এক আত্মীয় দু-দিন ধরে তাঁদের বাড়িতে আসছেন। কিন্তু, অনেক ডাকাডাকি করেও বাড়ির ভিতর থেকে কারও সাড়া মেলেনি। তারপরই দরজা ভেঙে ভিতরে ঢুকলে তিনজনের দেহ উদ্ধার হয়। পারিবারিক অশান্তির জেরেই পরিবারটি আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে পুলিশের অনুমান হলেও এই বাড়ির কোনও গন্ডগোলের অভিযোগ প্রকাশ্যে আসেনি। পুলিশে কোনও অভিযোগও দায়ের হয়নি এবং প্রতিবেশীরা জানাননি।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed