New Year 2024: নতুন বছরের এই অপয়া ৬দিন রুটি বানাবেন না! নির্দেশ না মানলে হবে চরম ক্ষতি – Bengali News | Avoid to make bread on these 6 days in new year

0

আর মাত্র দুদিন বাকি। তারপরেই নতুন বছরের নতুন সূর্য দেখবে গোটা বিশ্ববাসী। নতুন বছরের গোড়ার দিন থেকেই স্বাস্থ্য, আর্থিক অবস্থা ও ব্যবসায় আসুক সুখ, সমৃদ্ধির জোয়ার। জীবনে উন্নতি ও সাফল্যের মুখ দেখতে হলে বেশ কিছু নিয়ম মেনে চলা উচিত। কিছু ভাল পেতে হলে কিছু কাজ মন দিয়ে মেনে চলতে হয়। সেই নিষেধাজ্ঞা না মানলে গোটা জীবন বিভিন্ন সমস্যা ও বাধাবিঘ্নের মুখোমুখি হতে হয়। হতে পারে আর্থিক ক্ষতিও। তাই নতুন বছরের শুরু থেকেই অপয়া দিনগুলি জেনে রাখা ভাল। সেদিন কখনও আভেনে প্যান রাখা উচিত নয়। এমনকি রুটি তৈরি করাও নিষিদ্ধ। এদিন আভেনে কড়াই বা প্যান গরম করা তা অশুভ বলে মনে করা হয়।

হিন্দু ধর্মে, দেবী লক্ষ্মী পুজো করলে উপবাস, উত্সবের দিনগুলিতে রুটি তৈরি নিষিদ্ধ। এছাড়া, পিতৃপক্ষের তর্পণ করার দিনেও রুটি তৈরি করা ও প্যান গরম করা নিষিদ্ধ। প্রথা মেনে এদিন শুকনো খাবার ও ফলমূল খাওয়া উচিত। রান্নাঘরে আগুন না জ্বালানোই নিয়ম। তাই নতুন বছরে কোন কোন দিনগুলি অপয়া, কোন কোন দিনগুলিতে রুটি বানানো নিষিদ্ধ, তা জেনে নিন এখানে…

নতুন বছর 2024: এই ৬দিনে ভুলেও রুটি ও কড়াই গরম করবেন না…

১. মকর সংক্রান্তি, ১৫ জানুয়ারি, ২০২৪

নতুন বছরে মকর সংক্রান্তি পালিত হবে ১৫ জানুয়ারি। এই বিশেষ দিনে খিচড়ি খাওয়ার রীতি রয়েছে। চাল থেকে তৈরি যে কোনও খাবার এ দিনে খাওয়া যেতে পারে। মকর সংক্রান্তিতে তাই রুটি বানানো নিষিদ্ধ।

২. শীতলাষ্টমী, ২ এপ্রিল, ২০২৪

নতুন বছরের ২ এপ্রিল শীতলা অষ্টমী উপবাস পালিত হবে। ওই দিন শীতলাদেবীকে বাসি খাবার অর্থাৎ ঠান্ডা খাবার নিবেদন করাই রীতি। শীতলা অষ্টমীতে ঘরে আভেন বা উনুুন জ্বালানো নিষিদ্ধ। বাড়ির সকলেই কেবল শীতলাদেবীকে দেওয়া প্রসাদই গ্রহণ করে থাকেন। এ কারণে শীতলা অষ্টমীর দিনে রুটি তৈরি করা হয় না। তাজা খাবার রান্না করাও নিষিদ্ধ।

৩. নাগ পঞ্চমী, ৯ অগস্ট, ২০২৪

নতুন বছরের ৯ অগস্ট পালিত হবে নাগপঞ্চমী। সেদিন রান্নাঘরে রুটি বানাবেন না। তা অশুভ মনে করা হয়। মনে করা হয়, নাগ পঞ্চমীর দিন তাওয়া বা কড়াই গরম করা হয় না। কারণ নাগ পঞ্চমীর দিন ভক্তরা সর্পদেবতাকে পুজো করেন, আর তাওয়া বা প্য়ান হল সর্পের প্রতীক। এদিন পুরি ও হালুয়া বানানোই নিয়ম।

৪. শারদ পূর্ণিমা, ১৬ অক্টোবর, ২০২৪

নতুন বছরের শারদ পূর্ণিমা পালিত হবে ১৬ অক্টোবর। শারদ পূর্ণিমাতেও রুটি বানানো উচিত নয়। ওই দিন চন্দ্র ও লক্ষ্মীর পূজা করা হয়। দেবী লক্ষ্মী সম্পর্কিত উত্সবগুলিতে রুটি তৈরি করা উচিত নয়।

Source link

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may have missed